লুন্টিন মংডুতে দোকান লুট করেছে।

মংডূ,আরাকান।গত ৯ আগস্ট রাত দশটার দিকে দাঙ্গা পুলিশ যারা নাসাকার পরিবর্তে
দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত হয়েছে তারা রোহিঙ্গা মুসলিমদের একটি দোকান লুট করেছে বলেছে জানান একজন পুলিশ সদস্য
যিনি তার নাম প্রকাশে অনিচ্চা জ্ঞাপন করেন।
“একদল লুন্টিং যারা পাঁচজন ছিলেন এবং রাখাইন নাতালা গ্রামের পাহারা দিচ্ছিলেন পত চং গ্রামে,তারা থাই চং
গ্রামে যান ও একজন রোহিঙ্গা দোকানদার-আব্দুস সাত্তার(৪৮) পিতাঃদিলদার হুসেন এর দোকান লুট করেন-
গত ৯ আগস্ট।”
আব্দুল এর দোকান লুট এর পর তারা একটি স্থানীয় ট্যাক্সিতে করে পালিয়ে যান।লুন্টিন উক্ত দোকান থেকে
প্রায় দশ লক্ষ ক্যত এর জিনিস লুট করেন বলে জানান ভুক্তভোগীর একজন আত্নীয়।আলি আহমেদ(৩১) পিতা
ওমর হাকিম,যিনি ট্যাক্সি চালান তাকে বাধ্য করা হয় নাসাকা সদর এ যেতে।তারা তাকে কোন ভাড়া দেয় নি
এবং তাকে বলে যে,”আমরা গ্রামবাসীদের নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত।”বলে জানান জনৈক ব্যবসায়ী।
একই দিন উত্তর  মংডুতে পুনরায় নিরাপত্তা বাহিনী লুন্ঠিন মোতায়েন করা হয়।
এছাড়া সালামতের পুত্র মোহাম্মদ সালামকে তে চং গ্রাম থেকে পুলিশ গ্রেফতার যখন তিনি মংডু যাচ্ছিলেন
তার পুত্রের কাছে চিঠি পাঠাতে।চিঠিতে যখন তারা দেখতে পান লেখা রয়েছে নাসাকাকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে
এবং লুন্টিন ও পুলিশ স্থাপ্ন করা হয়েছে,ফলে তাকে গ্রেফতার করা হয় এবং ৫০০০ ক্যত এর বিনিময়ে তাকে
ছেড়ে দেওয়া বলে জানান একজন স্থানীয় মুরুব্বি যিনি নিরাপত্তার খাতিরে তার নাম প্রকাশ করেন নি।

Leave a Reply