দক্ষিণ মংডূতে আর্মি রোহিঙা জেলেদের হয়রানী করছে

মংডূ,আরাকান।দক্ষিন মংডূর কারা মে নাতালা গ্রামের আর্মি সদস্যরা রোহিঙ্গা জেলেদের হয়রানী করছেন যখন তারা স্টেশন পার করছে বলে জানান মংডূর একজন মাছ ব্যবসায়ী।

“খারা মে নাতালা গ্রামটি মংডু-আলি থান ক মহাসড়কের বাগুনা গ্রামের পাশে অবস্থিত এবং যখন
জেলেরা মাছ নিয়ে টেক্সি ক্যাব এ করে মংডূর দিকে যান তখন টাকা ছাড়াই ভাল মাছগুলো
স্টেশন নিয়ে নেয়।”
জেলেরা মংডূ মার্কেটে তাদের মাছ বিক্রি করতে চান অর্থ বেশী পাওয়ার জন্য কিন্তু আর্মি কর্মকর্তারা
তাদের ভাল মাছগুলো নিয়ে নেন যেগুলোর দাম বেশী-জেলেদের করার কিছুই থাকে না
এবং হয়রানীর ফলে তাদের ব্যবসার ক্ষতি হচ্ছে বলে জানান দক্ষিণ মংডুর একজন জেলে নৌকার মালিক।
মাছ ব্যবসা কতৃপক্ষ নিয়োজিত এজেন্ট দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় এবং তাকে ফী দিতে হয় জেলে,জেলে নৌকা ও জাল এর জন্য,এজেন্ট জেলেদের অনেক বেশী অর্থ আদায় করে যার ফলে ব্যবসার আমূল ক্ষতি হচ্ছে।
অধিকাংশ জেলে দক্ষিণ মংডুর এবং কতৃপক্ষ ও নিরাপত্তা বাহিনী সর্বদা তাদের দিকে দৃষ্টি রাখেন যাতে তাদের হয়রানী ও মাছ নিতে পারেন।কতৃপক্ষ ও নিরাপত্তা বাহিনী কেবল সে সমস্ত মাছ নেন যেগুলোর মূল্যমান বেশী।জেলেরা ভাল মাছগুলো তাদের দিতে চান না কিন্তু তবুও দিতে হয় ফলে জেলেরা আরো গরীব
হয়ে যাচ্ছে এবং জেলে ব্যবসা বন্ধ করতে হতে পারে।
নিরাপত্তা বাহিনী জেলেদের থেকে চাঁদা আদায় করে যখন তারা ট্যাক্সি ক্যাব এ করে মাছ বিক্রি করতে চান
এবং পথের দশটি চেকপোস্টে তাদের অর্থ দিতে হয়,তাহলে তাদের মাছ ব্যবসা চালানোর জন্য কত দামে বিক্রি করতে হবে তা আসলেই চিন্তার ব্যাপার এবং তাদের পথে বসতে হতে পারে।

Leave a Reply