প্রায় ৪০টির বেশী নৌকাতে নদীতে রোহিঙারা ভাসমান অবস্থায় আছে

ক্যকপ্রু,আরাকান।আকিয়াবের পাশের নদীতে প্রায় ৪০টি বোটে রোহিঙ্গারা ভাসমান অবস্থায় আছে,
তারা আকিয়াবে সন্ধ্যায় নামতে চাচ্ছিল কারণ অধিকাংশ নৌকাতে তেল,খাবার,ওষূধ ছিল না

কিন্তু নিরাপত্তা বাহিনী ও অভিবাসন কর্মকর্তারা তাদের আকিয়াবে নামতে দেয় নি।"
"নৌকাগুলোকে তীরে ভিড়তে দেওয়া হয় নি ,তাই সেগুলো এখনও নদীতে ভাসমান অবস্থায় আছে।"
আকিয়াবের একজন জানান,আকিয়াবের রোহিঙ্গারা উক্ত বোটের যাত্রীদের সাহায্য করতে চান খাদ্য,তেল,
পানি দিয়ে,এছাড়া তারা আহতদের ওষুধ ও চিকিৎসার সাহায্যও করতে চান ।
"রোহিঙা আইডিপি ক্যাম্পের  ছড়িয়ে পড়লে এই খবর তারা রোহিঙা গ্রামগুলো নিরাপত্তা বিধানে উদ্যোগী
হয়,অন্যদিকে রাখাইনরা উক্ত নৌকা গুলোতে হামলা চালাতে প্রস্তুতি নিচ্ছে,নৌকাগুলো আকিয়াবে ভিড়তে
চাইলে কতৃপক্ষ তাদের তা করতে দেয় নি,রাখাইনরা এই নৌকাভর্তি রাখাইনদের উপর হামলা চালাতে
উদ্যোগী হচ্ছে।
"প্রায় ১৫০০০ রোহিঙা নৌকাগুলোত অবস্থান নিচ্ছে এবং তাদের ভাগ্য সম্বন্ধে কিছু জানা যায় নি।"
উত্তর আরাকানের এই রোহিঙ্গারা বোট দিয়ে আকিয়াব ও মংডুতে বা বাংলাদেশের সীমান্তে অবতরন
করতে চাই যাতে তারা নিজেদের রক্ষা করতে পারে।"
এছাড়া আরো২০০০ রোহিঙ্গা যাদের ঘর পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে ,তারা ইয়া তিত ও ইয়া হং এর বাসিন্দা,তারা ৭টি ইঞ্জিন
নৌকা কর,৫৫ টি বোট ও একটি সাম্পানে করে পালাতে চেয়েছিল বলে জানান একজন রোহিঙা।
এই রোহিঙা গ্রুপ রাখাইনদের হাতে হামলার স্বীকার হন যেখানে কিছু বোট ও সাম্পান পানিতে ডুবে যায়,এছাড়া
১০০ রোহিঙ্গা হামলায় মারা যায় এবং মৃতদেহগূলো নদীতে ভাসতে দেখা যায়।"
এছাড়া উক্ত গ্রুপকে কতৃপক্ষ নামতে দেয় নি এবং খোদা জানে তাদের ভাগ্যে কি আছে।"

















Leave a Reply