মংডুতে টোল আদায় বৃদ্ধি

মংডূ,আরাকান।নাসাকা রোহিঙ্গা যাত্রীদের থেকে টোল আদায় বাড়িয়ে দিয়েছে,যারা নাসাকা চেক পোস্ট ও কালভার্ট
অতিক্রম করে মংডুতে আসেন,জানান একজন ব্যবসায়ী,যিনি তার নাম প্রকাশ করতে চান নি।

মংডূ শহরে নাসাকা মংডূ-আলি তন ক এর মধ্যবর্তী সব ব্রীজ ও কালভার্টে চেকপোস্ট বসিয়েছে,একই কাজ করেছে
তারা মংডূ-বাউলি বাজার মহাসড়কে।
গ্রামাঞ্চলের রোহিঙ্গাদের ব্রীজ,কালভার্ট ও নাসাকা চেকপোস্ট অতিক্রম করে মংডূতে আসতে হয় এবং রোহিঙ্গা গ্রামবাসীদের
রাস্তায় থাকা সমস্ত নাসাকা পোস্টে অর্থ প্রদান করতে হয়।
নাসাকা সাম্প্রদায়িক দাঙার পর আরাকানে চেকপোস্টের সংখ্যা বাড়িয়ে দিয়েছে।
নাসাকা যারা আউটপোস্ট অতিক্রম করতে চান তাদের থেকে অর্থ আদায় না করে অতিক্রম করতে দেন না,এবং কেবল
রোহিঙ্গাদের থেকে এই অর্থ আদায় করা হয়,রোহিঙাদের জনপ্রতি ২০০ থেকে ৫০০ ক্যত আদায় করা হয়,মাঝে মাঝে
নাসাকা ৫০০ থেকে ১০০০ ক্যত আদায় করে।
"গ্রামবাসীরা কিভাবে নাসাকাকে অর্থ প্রদান করবে যদি তারা মার্কেটে কিছু বিক্রি করে আসতে না পারে?আর দরিদ্র
গ্রাম বাসীদের ও কি হবে?
এছাড়া বিভিন্ন সুত্র জানিয়েছে,নাসাকা নারী ও মেয়েদের সম্পূর্ন শরীর পরীক্ষা করে চেকপোস্ট এ।
একজন গ্রামবাসী জানান যে,অর্থ না দিলে চেকপোস্ট অতিক্রম সম্ভব না আর অন্য রাস্তা দিয়ে যেতে চাইলে
নাতালা গ্রামবাসীরা হামলা চালাবে।
একজন কাঠুরিয়া জানান যে,তার পরিবারের সদস্যরা খাদ্য সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন কারণ তিনি কাঠ কাঠতে
পাহাড়ে যেতে পারছেন না,একই পরিস্থিতি আরো অনেক রোহিঙ্গা পরিবারের।
নাসাকা চেষ্টা চালাচ্ছে তারা কিভাবে আরো রোহিঙ্গাদের থেকে অর্থ আদায় করবে এবং রোহিঙ্গাদের জন্য
সমস্যার সৃষ্টি করবে,জানান একজন গ্রামবাসী।












Leave a Reply