রোহিঙা নারীরা তাদের সম্পত্তির অবস্থা সম্পর্কে জানাতে মংডু-আলি তং কো হাইওয়েতে জমায়েত হয়েছে

মংডু,আরাকান।রোহিঙা নারীরা তাদের লুট হওয়া সম্পত্তির ব্যাপারে সবাইকে জানাতে হাইওয়েতে জমায়েত হয়েছে
বলে জানান একজন স্কুল শিক্ষক।উল্লেখ্য রোহিঙাদের ঘরবাড়ি ও সম্পত্তি সম্প্রতি রাখাইন ও নিরাপত্তা বাহিনী লুট করেছে।

রোহিঙ্গা নারী যাদের সংখ্যা ৩০০ এর বেশী হবে তারা মংডূর রাস্তার ধারে দাড়িয়ে প্রত্যেক গাড়ি থামিয়ে তাদের দাবি
ও অসহায়ত্বের কথা জানায়।
এছাড়া তারা নাসাকার একটি গাড়ীও থামিয়ে ফেলে এবং সেখানের অফিসারকে বলেন যাতে তাদের নিরাপত্তা প্রদান করা
হয় লুন্ঠিন,আর্মি ,পুলিশ ও রাখাইনদের হাত থেকে,এছাড়া তাদের ঘরের পুরুষ মানুষরা আটকের ভয়ে ঘরে
থাকতে পারছেন না।তারা নাসাকাকে অনুরোধ করেন যাতে নাসাকা নিরাপত্তার দ্বায়িত্ব নেয়।
“তবে নাসাকা অফিসার জানান যে,উক্ত নারীরারা নাসাকার কথা বলে নি।”
পুরুষ গ্রামবাসীরা তাদের গ্রাম থেকে আটকের ভয়ে পালিয়ে যান,এবং নিরাপত্তা বাহিনী প্রায় ৩০ জন নারীকে
আটক করে এবং তারা ঘরে ঢুকে লুট চালায় এছাড়া অর্থ স্বর্ন ও কাপড় লুট করে।নিরাপত্তা বাহিনী ৩৫টি গরু,৫০টি
ছাগল ও লুট করে,নিরাপত্তা বাহিনী এছাড়া আরো ৪০টি ঘরে ঢুকে রান্নার পট লুট করে এসময় রাখাইনরা তলোয়ার হাতে
রোহিঙাদের ভয় প্রদর্শন করে।
এছাড়া আমরা রোহিঙা সম্প্রদায়ের জন্য নিরাপত্তা ছাচ্ছি এবং রোহিঙ্গাদের থেকে অর্থ আদায়ের জন্য সৃষ্ট ওয়ারেন্ট প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি।

Leave a Reply