গ্রাম প্রশাসক ছাত্রদের মংডুতে স্কুলে যেতে বাধ্য করছে

মংডূ,আরাকান।গ্রাম প্রশাসকরা রোহিঙা ছাত্রদের উচ্চ বিদ্যালয়ে যেতে বাধ্য করছে  প্রধান শিক্ষক উ ক যা তুন এর
৩০ আগস্ট করা অনুরোধের প্রেক্ষিতে।
“প্রধান শিক্ষক সব গ্রাম প্রশাসক,ছাত্র ও অভিভাবকদের নোটিশ পাঠিয়েছে যাতে ছাত্ররা বিদ্যালয়ে আসে এবং
প্রধান শিক্ষক এটা দেখাতে চান যে সমস্ত ছাত্ররা স্কুলে শিক্ষা লাভ করছে।”
কিন্তু উক্ত নোটিশে এও বলা হয়েছে স্কুলে দুইটি সেকশান করা হয়েছে সকালে রাখাইনদের পড়ানো হবে এবং রোহিঙাদের
বিকালে পড়ানো হবে এছাড়া কতৃপক্ষ জাতিবিদ্বেষ ছড়াচ্ছে তারা রোহিঙা এর পরিবর্তে নোটিশে বাংলা ব্যবহার করছে।
গত ৩০ আগস্ট ৪০ জন রোহিঙা ছাত্র স্কুলে উপস্থিত ছিলেন কিন্তু স্কুল কতৃপক্ষ রোহিঙাদের জন্য সমস্যা সৃষ্টি করেন
যখন তারা পতাকাকে সালাম দিতে যান ,তাদের মাথা নিচু করতে বলা হয় যা রোহিঙাদের বিরূদ্ধে যায় কারণ তারা স্যালূট
দিতে অবস্থা এইভাবে ঝুকে সম্মান প্রর্দশন না করে আমরা ডান হাতে স্যালুট দিতে চাই যেরূপ আগে হত।
যদি এইরূপ চলতে থাকে তবে আমরা ঘরে পড়াশোনা করব স্কুলে না ,আমাদের স্কুলে পড়ানো হয় না এবং শিক্ষকরা সময়
নষ্ট করেন।
রোহিঙা ছাত্রদের এছাড়া তাদের জাতীয়তা হিসেবে বাঙালী লিখতে বাধ্য করা হয়েছে রোহিঙ্গা না লিখতে দিয়ে,
এরপর তারা ঘরে ফেরত আসেন,রাখাইন ও রোহিঙ্গাদের মধ্যে জুন ৮ তারিখ থেকে সংঘর্ষ এর পর ম ম কান্দান এর স্কুল
বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে।

Leave a Reply