১৫ তারিখ এর সর্বশেষ সংবাদ

মংডুতে দুইজন রাখাইন আটক
১৪ তারিখ উত্তর মংডুতে রোহিঙ্গা গ্রামের ঘরসমূহ লুন্ঠন ও ধর্ষনের সময় আর্মির ভানকারী দুইজন  রাখাইনকে
নাসাকা গ্রেফতার করে।

পুলিশ,লুন্ঠিন,আর্মি ও গোয়েন্দারদের নির্যাতনের কারণে রোহিঙ্গারা সাহস হারিয়ে ফেলেছে,এই সুযোগে রাখাইনরা
 রোহিঙ্গাদের গ্রামে গিয়ে আর্মি সেজে  ডাকাতি ও নারীদের ধর্ষন করছে।কিন্তু তারা অস্ত্র ও কাপড় কই পেল তা 
সন্দেহের কথা!
মংডূতে রোহিঙ্গাকে মারধোর,হাসপাতালে ভর্তি
মিমা কাংদান গ্রামে ইকবাল নামের একজন রোহিঙ্গাকে রাখাইনরা মারধোর করেছে ,তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা
হয়েছে।
নিখোজ
১২ তারিখ মোহাম্মদ নামের একজনকে পাওয়া যাচ্ছে না,তিনি নাসাকা ৪ নং এলাকার বাসিন্দা,তার পানের বরজে যাওয়ার
সময় যা রাখাইনদের গ্রামের নিকটে তখন তিনি হারিয়ে যান,আশঙ্কা করা হচ্ছে তাকে মেরে ফেলা হয়েছে।
মংডুতে পরিবারের লিস্ট সংগ্রহ
জুলাই এর ৫ তারিখে একদল নাসাকা ১২ নং ক্যাম্প থেকে মংডু শহরের ৫ নং এলাকায় যান এবং কিছু পরিবারের লিস্ট নিয়ে যায়
ভুক্তভোগীরা হলেন  নুর আলম(৫০),আবু সিদ্দিক(৪৮),আইয়ুব(৩৫),আলী আহমেদ(৪০),আব্দুস সাত্তার(৪৮),আবু কালাম(৪৭),
সদু(৪৯),আমির হুসেন(৩০),সাইদুল ইসলাম(২৯)।
নাসাকা তাদের থেকে ২০০০০০ ক্যত করে চাচ্ছে লিস্ট ফেরত দেওয়ার বিনিময়ে।
নাসাকা,পুলিশ,লুন্ঠিন,আর্মি,সারাপা ও রাখাইনদের অত্যাচার নির্যাতনে রোহিঙারা অসহায় হয়ে পড়েছে,জরুরী অবস্থা
কেবল রোহিঙ্গাদের উপরে প্রযোজ্য হচ্ছে,বিশ্ব সম্প্রদায় এটিকে জাতিগত দাঙা হিসেবে বিবেচনা করলেও প্রকৃত সত্য হল
সরকার তাদের রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিল এর জন্য এই কাজ করছে।

Leave a Reply