জুন ২০,২০১২ সকালের সর্বশেষ সংবাদ

দক্ষিন মংডুতে গাওদুসরা গ্রামে আর্মির গুলি নিক্ষেপ
দুপুরে গাদোসারা গ্রামে দুপুরে আর্মি ফাকা গুলি ছুঁড়ে,এবং তরুন ও নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিরা আটক হওয়ার ভয়ে উক্ত গ্রাম থেকে পালিয়ে যায়,গ্রামের অবস্থা অস্থিতিশীল হয়ে পড়েছে এবং কেবল নারীরা সেখানে
ভয়ে অবস্থান  করছে,এছাড়া নারীরা ধর্ষন ও ঝামেলার ভয় পাচ্ছেন।

আটক ও মারধোর
আজ সকালে ওয়ার্ড নং ১ এর বালউইন  নামের একজন শিক্ষক ও গতকাল রাত্রে য য লে নামের আরেকজন শিক্ষককে ২ নং ওয়ার্ড(ফয়েজি পাড়া) থেকে গ্রেফতার করে,
এছাড়া সাইয়েদ আমিন এর পুত্র নুর কামালকে সেজার  গ্রাম থেকে আয়ক করে।
এছাড়া গতকাল রাত্রে একজন দোকান মালিক  -ফায়াজ ও তার পুত্রকে তার ঘরে মারধোর করে গ্রেফতার করা হয় ৫ নং ওয়ার্ড থেকে।
এছাড়া বশর এর পুত্র কায়সারকে আসিকা পাড়া থেকে গতকাল রাত্রে গ্রেফতার করা হয়।
এছাড়া প্রাক্তন চেয়ারম্যান সৈয়দ আলম ও আরো ১৬ জনকে লাবাজার থেকে গ্রেফতয়ার করা হয়,সরফুদ্দিন বিল থেকে সায়দুল রহমান এর পুত্র ওসমানকে গ্রেফতার করা হয়।

এছাড়া ৪ নং ওয়ার্ড এর রাখাইনরা মংডুর কোর্ট স্টাফ আলম(৪৫)কে মারধোর করে এবং যিনি অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান রাস্তায় কিন্তু কোন নিরাপত্তা বাহিনী তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসে নি।

লুট ও ডাকাতি

পুলিশ কর্মকর্তারা ফায়াজের ঘরে গিয়ে ১০ মিলিয়ন ক্যত ও ৮১৬।৫ গ্রাম সোনা লুট করেছে এছাড়া আরো ঘর সামগ্রী লুন্ঠন করে।
আর্মি সকালে খোলা গুলি ছুড়ে গাওদুসারা গ্রামে লুটতারাজ চালায়।
 সহযোগীরা গ্রামের অবস্থা ভয়াবহ করে তুলেছে
শে জার গ্রামের প্রাক্তন কো-অপারেটিভ শপের মালিক আবুলের জামাতা ও প্রাক্তন পুলিশ মনসুর এর পুত্র মাওলানা জামাল রোহিঙাদের বিরূদ্ধে কতৃপক্ষেকে অভিযোগ করছে এবং  কতৃপক্ষ গতকাল রাত্রে
১০ জন রোহিঙাকে সেখান থেকে গ্রেফতার করেছে।নুর কামালকে কতৃপক্ষ গ্রেফতার করেছে এবং বাকিরা ভয়ে পালিয়ে যায়।জামাল নাসাকাকে গত ৭ বছর ধরে তথ্য দিয়ে আসছে এবং একজন মংডুর ব্যক্তি জানান,
"ঠিক কয় জন এর নাম ঐ লিস্ট এ আছে তা আমরা জানি না।"
এছাড়া বার্মিজ কতৃপক্ষ নতুন উপায় অবলম্বন করে মংডুর পরিস্থিতি আরো অস্থিতিশীল  করে তুলেছে,তরুণ ও নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিদের নিরাপত্তা বাহিনী গ্রেফতার করছে এই বলে যে তাদের কাছে ছবি আছে
কিন্তু প্রকৃত কথা হল তা পরিবারের ছবিগুলো হতে নেওয়া এবং তা দিয়ে এখন রোহিঙ্গাদের হয়রানি করা হচ্ছে।প্রতিদিন ১০-১৩ জন রোহিঙ্গা ছোট ছোট নৌকা করে বাংলাদেশের দিকে পাড়ি দিচ্ছে
এছাড়া বার্মিজ আর্মি তরুণ রোহিঙ্গাদের আটক করছে বিশেষ করে যারা আগের কোন সংস্থার সাথে যুক্ত ছিল এবং শিক্ষিত।




































































Leave a Reply