১৮ জুনের সর্বশেষ সংবাদ

মংডুর একজন রাজনীতিবিদ আমাদের জানিয়েছেন যে,আর্মি,নাসাকা ও পুলিশ এখন সাধারন রোহিঙাদের ঘরবাড়ি,লুন্ঠন,ধর্ষন ও ধরপাকড় করছে,তাদেরকে সহায়তা করছে নতুন আসা অধিবাসী ও রাখাইনরা,সাধারন রোহিঙাদের হত্যা করা হচ্ছে,যাদের মধ্যে নারী ও শিশুও আছেন।
“বার্মার নাগরিক হিসেবে রোহিঙাদের অধিকার ফেরত দেওয়া উচিত,তাদের ভূমি তাদের প্রদান করা হোক এবং যাবতীয় নিরাপত্তা দান করা হোক যাতে তাদের ভবিষ্যতে অন্য দেশে না পালাতে হয়”,জানান তিনি।

বিজিবি ১০৪ জন রোহিঙাকে আটক করেছে
বোর্ডার  গার্ড বাংলাদেশ ১০৪ জন রোহিঙ্গাকে নাফ নদী থেকে গ্রেফতার করেছে,তারা ছোট নৌকা করে ১০-১৫ জন করে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে আসছিল,এদের মধ্যে অধিকাংশই তরুণ,নাসাকারা গ্রামে গ্রামে বৈঠক ডেকে নাসাকাদের গ্রেফতার করছে এবং তাদের নাসাকা সদর এ আটকিয়ে রাখছে।
নাসাকা ও আর্মি কতৃক আটক
আব্দুল্লাহ বাগনিয়েনা গ্রাম
২০ জন রোহিঙাকে গ্রন্যা পাড়া,হাউংকালি গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে
পংজার গ্রাম থেকে ৩ জন রোহিঙাকে গ্রেফতার করা হয়েছে(মো সুলতান,আব্দুল রাজ্জাক ও আরেকজন)
মাওলানা ওসমানকে লাবাওজা গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
এছাড়া ডাঃ নিজাম উদ্দিনকে কতৃপক্ষ ডেকে নিয়ে যায় এবং এখন ও তিনি তাদের হেফাজতে আছেন,তার ব্যাপারে কিছু জানা যায় নি।
এছাড়া ৪ নং ওয়ার্ড থেকে বৈঠক হতে নুরুল হক ওরফে কালা,ফজল,ফাইজুল হক(প্রাক্তন শিক্ষক) ও হুসেনকে আটক করা হয়।
এছাড়া ২ নং ওয়ার্ডের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ইউনুসকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
লুট ও ধব্বংস
আব্দুল্লাহ এর ঘর লুন্ঠনের পর নিরাপত্তা বাহিনী তা জ্বালিয়ে দেয়।
এছাড়া আর্মি,নাসাকা,সামরিক গোয়েন্দা ও পুলিশ হুসেনের ঘর লুন্ঠন করে এবং তার ঘরের মানুষদের নির্যাতন করে।
ধর্ষন
পংদং পিন গ্রামে আমিনা নামের এক রোহিঙা তরুনীকে আর্মি গন ধর্ষন করেছে এছাড়া আরো দু জন রোহিঙ্গা নারীকে ধর্ষন করা হয়।
খাদ্য
রোহিঙ্গারা খাদ্য সমস্যায় ভুগছে কারণ ১৪৪ ধারার ফলে তারা খাবার কিনতে যেতে পারছেন না,এবং রাখাইন ও পুলিশের সহায়তায় নাসাকা ও আর্মি তাদের ঘরবাড়ি দোকান পুড়িয়ে দিয়েছে এবং লুন্ঠন করেছে।
রোহিঙ্গাদের সরকারও কোন সাহায্য করছে না যদিও রাকাহ্নদের সাহায্য করছে।রোহিঙ্গারা আর্ন্তজাতিক সম্প্রদায়ের কাছে দাবি জানাচ্ছে যাতে তাদের এই খাদ্য প্রদান করা হয়।
বৈঠক
২৫ জন রাখাইন ও ২৫ জন রোহিঙ্গা সম্প্রতি মংডূতে আলোচনার জন্য মিলিত হন,এছাড়া এতে মংডু কতৃপক্ষও উপস্থিত ছিল,বৈঠকে শান্তিপূর্ন সহাবস্থানের উপর জোর দেওয়া হলেও,নাসাকা ডিরেক্টর লে কর্নেল অং গি জানান আগামী ৩দিন আরো অধিক সংখ্যক মানূষকে গ্রেফতার করা হবে যারা সমস্যা সৃষ্টি করবে।

Leave a Reply