সর্বশেষ সংবাদঃজুন ১৬

নাসাকা ও লুন্টিন সাওমানা পাড়া ঘেরাও করে রেখেছে
তিন মাইলের এর নাসাকা বাহিনী ও লুন্ঠিন রোহিঙা গ্রাম “সাওমাওনা পাড়া” যা মতুগি এর কাছে অবস্থিত,তা ঘেরাও করে রেখেছে সকাল থেকে,পুলিশ লুন্ঠিন ও রাখাইন ঘরবাড়ী পুড়িয়ে দিয়েছে এবং বাকি ঘরগুলোও একই অবস্থার সম্মুখীন হতে পারে এবং সেগুলো পাহারা দেওয়ার মত মহিলারা ছাড়া অন্য কেউ নেই।
এছাড়া নাসাকা ও লুন্ঠিন ঘরগুলোতে অভিযান চালাচ্ছে,রোহিঙারা অধিকাংশ ভয়ে দিন কাটাচ্ছে উক্ত দুই গ্রামে।
কাউক তোতে ঘর পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে
কাউকতো উপজেলার আপাকো গ্রামের ২০টি ঘর রাখাইনরা পুড়িয়ে দিয়েছে,পাশের গ্রাম থী রাখাইনরা উক্ত গ্রামে এসে আগুন নিভিয়ে দেয়,তবে হতাহতের কোন ঘটনা শুনা যায় নি।এই ঘটনার পর কাউকতো দক্ষিন ও উত্তরে আর্মি অবস্থান নিয়েছে।
রাতেদং
রাখাইনরা গতকাল তামিলা ও থংদো গ্রাম পুড়িয়ে দিয়েছে।
শেজার গ্রামে রান্নাঘর এর ধারালো ছুরি জাতীয় জিনিস নাসাকা দখল করছে
শেজার,মংডূর ১৬ ক্যাম্পের নাসাকা সদস্যরা সকাল থেকে ছুরি জাতীয় দ্রব্য দখল করছে,নাসাকা গ্রামবাসীদের তাদের পরিবারের লিস্ট অনুযায়ী ডেকে এই কাজ করছে
মংডুতে লুন্ঠন
লুন্ঠিন (দাঙা পুলিশ) ,রাখাইনদের সহায়তায় বাংগা পাড়া যা যাওমামাত ইউনিয়নের অর্ন্তভুক্ত -তারা সেখান থেকে চাল,মূল্যবান দ্রব্য ও অন্যান্য মালামাল লুট করেছে।ভুক্তভোগী ছিলেন রশিদ আহমেদ ,এছাড়া গ্রামবাসীদের সাথে নাসাকারা বৈঠক করেছেন।
পরিবারের সদস্য নিরীক্ষা ও গ্রেফতার
নাসাকা ও রাখাইনরা পরিবারের সদস্য লিস্ট পরীক্ষা করে কিছু গ্রামবাসীকে থান্দা গ্রাম যা ৭ নং নাসাকা এরিয়ার অর্ন্তভুক্ত সেখানে থেকে গ্রেফতার করে।

Leave a Reply